ফিটনেস

দ্রুত ওজন কামতে এই খাবার গুলো খান আর তিন দিনেই ম্যাজিক দেখুন

food for weight lose

বাড়তি ওজন নিয়ে আমরা সকলেই কমবেশী দুশ্চিন্তার মধ্যে থাকি। প্রয়োজনের তুলনায় ওজন বেড়ে গেলে না নিজেকে দেখতে সুন্দর লাগে, না নিজের শরীর এবং স্বাস্থ্য সুস্থ থাকে। বাড়তি ওজনের কারণে হাজারো রকমের রোগ শরীরে দানা বাঁধতে শুরু করে।

যে সকল কারণে, শরীর সুস্থ রাখার জন্য এবং বাড়তি ওজন কমিয়ে ফেলার জন্যে অনেক সময়ে আমাদের খুব পছন্দের খাবার খাওয়া বন্ধ করে দিতে হয়। অথচ, একটু বুদ্ধি খরচ করে খাওয়া দাওয়া করতে পারলেই আপনার পছন্দের খাবারগুলো খেতে তো পারবেনই, আবার আপনার ওজন বেড়ে যাবার জন্যে দুশ্চিন্তাও করতে হবে না।

আজকে আপনাদের এমন কিছু মজাদার এবং কম ক্যালরির বিকল্প কয়েকটি খাবারের কথা বলা হলো।

১/ আইসক্রিম এর বদলে শরবত ললি:
আইসক্রিম এর মূল উপাদান ক্রিম, যা আপনার স্থূলতার প্রথম কারণ। কারণ ক্রিমে থাকে অনেক বেশী ফ্যাট। তবে আইসক্রিম খেতে ইচ্ছা করলে একেবারেই আইসক্রিম না খাওয়ার বদলে চাইলে ঘরেই বানিয়ে ফেলতে পারেন যেকোন ফলের শরবত দিয়ে আইস ললি। আইস ললিতে যেকোন আইসক্রিমের চাইলে ক্যালরি এবং ফ্যাট অনেক কম থাকে।

২/ চকলেট এর পরিবর্তে খান কেক:
খুবই দুঃখজনক ভাবে প্রতিটা মিল্ক-চকলেটে প্রচুর পরিমাণে ক্যালরি এবং ফ্যাট থাকে। আপনার যদি মিষ্টি কোন কিছু খেতে খুব ইচ্ছা করে তবে, চকলেট এর পরিবর্তে লো ফ্যাট প্লেইন কেক খেতে পারেন। তুলনামূলক ভাবে কেকে ক্যালরি থাকে বেশ সীমিত।

৩/ টুনা রান্না করুন তেল ছাড়া:
টুনা মাছের যে কোন পদ খেতে কে না পছন্দ করে! কিন্তু এই টুনা মাছ যখন আপনি তেল দিয়ে ভাজি করবেন অথবা রান্না করবেন, তখন তার ক্যালরি ইনটেক বেড়ে প্রায় দ্বিগুণ হয়ে যায়। তাই ক্যান টুনা রান্নার সময়ে তেল ব্যবহার না করে ক্যানের টুনা জুস দিয়েই রান্না করে ফেলুন।

৪/ খই খেতে পারেন বাদামের বদলে:
একটু অবাক হচ্ছেন? তবে বাটি ভর্তি বাদামের পরিবর্তে হালকা ঝাল ঝাল খই বা পপকর্ন খেতেও ভালো লাগবে এবং আপনার স্বাস্থ্যের জন্যে সেটা ভালো হবে।

৫/ বিস্কুটের বদলে প্রচুর ফল খান:
বিকেল সন্ধায় খিদে পেলেই নানান রকমের বিস্কুট এর কৌটা নিয়ে না বসে ফলের ঝুড়ি নিয়ে বসে পড়ুন। ময়দা, মাখন, চিনি দিয়ে বানানো বিভিন্ন রকমের বিস্কুট অথবা কুকিজ খেতে দারুণ মজার হলেও, প্রচুর ক্যালরি এবং প্রচুর ফ্যাট এর জন্যে সেটা আপনার শরীরের জন্যে খুব একটা ভালো নয়। তার চেয়ে একই পরিমাণ ফল খেয়ে ফেলতে পারেন ফ্রুট সালাদ বানিয়ে। খেতেও হবে মজাদার, স্বাস্থ্যের জন্যেও হবে ভালো।

৬/ তাজা আলুর বদলে খেতে পারেন ফ্রোজেন আলু:
অদ্ভূত ব্যপার হচ্ছে, বাইরের তাজা আলুর বদলে ফ্রোজেন আলু খেলে আপনার পেট বেশী সময় ধরে ভরা থাকবে। দু’রকম আলুর ক্ষেত্রেই ক্যালরি পরিমাণ একই হলেও, ফ্রোজেন আলুতে অন্য এক ধরণের স্টার্চ তৈরি হয়, যার ফলে আপনার অনেকক্ষন ধরে কোন খিদা পাবে না।

৭/ ঘরেই বানিয়ে ফেলুন বিভিন্ন রকমের চিপস:
কুড়মুড়ে চিপসের সাথে কোন কিছুর তুলনাই হয় না। বাইরে বের হলে কিংবা ঘরে অবসর সময়ে চিপস খেতে কার না ভালো লাগে। তবে চিপস পছন্দ করলেও বাইরের প্যাকেটজাত চিপস খাওয়া থেকে বিরত থাকুন। ঘরেই আলু অথবা কাঁচাকলা দিয়ে বানিয়ে ফেলুন ফ্রেশ চিপস। তাতে ক্যালরি ইন্টেক এর পরিমাণ কমে যাবে প্রায় অর্ধেক!

Comments

Please comments

Copyright © 2016 BanglaMag.

শীর্ষে